Site under maintenance. Sorry for the inconvenience. For any query: +8801849-849480, +880171289021

বীরবলের হালখাতা

(author),
300 TK 222 TK
- Pages
  • Save 78 Tk.

Description
বীরবলের চিঠি মহারাজা শ্রীযুক্ত জগদিন্দ্রনাথ রায় , 'মানসী'সম্পাদক মহাশয় করকমলেষু মানসী যে সম্পাদকসংঘের হাত থেকে উদ্ধারলাভ করে অতঃপর রাজ আশ্রয় গ্রহণ করেছে , এতে আমি খুশি ; কেননা , এ দেশে পুরাকালে কী হত তা পুরাতত্ত্ববিদেরা বলতে পারেন কিন্তু একালে যে সব জিনিসই পঞ্চায়তের হাতে পঞ্চত্ব লাভ করে , সে বিষয়ে আর কোনাে সন্দেহ নেই । আমার খুশি হবার একটি বিশেষ কারণ এই যে – আমার জন্য মানসী যা করেছেন , অন্য কোনাে পত্রিকা তা করেন নি । অপরে আমার লেখা ছাপান , মানসী আমার ছবিও ছাপিয়েছেন । লেখা নিজে লিখতে হয় , ছবি অন্যে তুলে নেয় । প্রথমটির জন্য নিজের পরিশ্রম চাই , ছবি সম্বন্ধে কষ্ট অপরে যিনি আঁকেন ও যিনি দেখেন । তাই আপনি মানসীর সম্পদকীয় ভার নেওয়াতে আমি যােলােআনা খুশি হতুম , যদি আপনি ছাপাবার জন্য আমার কাছে লেখা না চেয়ে আলেখ্য চাইতেন । এর কারণ পূর্বেই উল্লেখ কষেছি । তাজা সর্ব শিরােধার্য । হলেও সর্বদা পালন করা সম্ভব নয় । রাজার আদেশে মুখ বন্ধ করা সহজ , খেলা কঠিন । পৃথিবীতে সাহিত্য কেন , সকল ক্ষেত্রেই নিষেধ - মান্য করা অনুসরণ - কারবার চাইতে অনেক সহজসাধ্য । এর ওর হাতে ভাল খেয়ে । ' - এই নিষেধ প্রতিপালন করেই ব্রাহ্মণজাতি আজও টিকে আছেন , বেদ - অধ্যায়নের বিধি পালন করতে বাধা হলে শুবে মারা যেতেন । . সে যাই হােক , এ কথা সত্য যে , আমার মতাে লেখকের সাহায্যে সাহিত্য - জগতের কোনাে কাজ কিংবা কাগজ সম্পাদন করা যায় না ! কেননা আমি সরস্বতীর মন্দিরের পূজারা নই , স্বেচ্ছাসেবক । স্বেচ্ছাসেবার যতই কেন গুণ থাকুক - না , তার মহাদোষ এই যে , সে - সেবার উপর বারোমেসে নির্ভর করা চলে না । আর মাসিকপত্রিকা নামে মাসিক হলেওম আসলে বারোমেসে। তা ছাড়া পত্রের প্রত্যাশায় কেউ শিমুলগাছের কাছে ঘেঁসে না ; এবং আমি যে সাহিত্য - উদ্যানে একটি শল্মলীতরু, তার প্রমাণ আমার গদ্যপদ্যেই পাওয়া যায় । লােকে বলে , আমার লেখায় গায়ে কাঁটা, আল মাথায় মধূহীন গন্ধহীন স্কুল ।

Publisher: মাতৃভূমি প্রকাশনী
ISBN: 9787025402785
Number of pages: -


REVIEWS
বীরবলের চিঠি মহারাজা শ্রীযুক্ত জগদিন্দ্রনাথ রায় , 'মানসী'সম্পাদক মহাশয় করকমলেষু মানসী যে সম্পাদকসংঘের হাত থেকে উদ্ধারলাভ করে অতঃপর রাজ আশ্রয় গ্রহণ করেছে , এতে আমি খুশি ; কেননা , এ দেশে পুরাকালে কী হত তা পুরাতত্ত্ববিদেরা বলতে পারেন কিন্তু একালে যে সব জিনিসই পঞ্চায়তের হাতে পঞ্চত্ব লাভ করে , সে বিষয়ে আর কোনাে সন্দেহ নেই । আমার খুশি হবার একটি বিশেষ কারণ এই যে – আমার জন্য মানসী যা করেছেন , অন্য কোনাে পত্রিকা তা করেন নি । অপরে আমার লেখা ছাপান , মানসী আমার ছবিও ছাপিয়েছেন । লেখা নিজে লিখতে হয় , ছবি অন্যে তুলে নেয় । প্রথমটির জন্য নিজের পরিশ্রম চাই , ছবি সম্বন্ধে কষ্ট অপরে যিনি আঁকেন ও যিনি দেখেন । তাই আপনি মানসীর সম্পদকীয় ভার নেওয়াতে আমি যােলােআনা খুশি হতুম , যদি আপনি ছাপাবার জন্য আমার কাছে লেখা না চেয়ে আলেখ্য চাইতেন । এর কারণ পূর্বেই উল্লেখ কষেছি । তাজা সর্ব শিরােধার্য । হলেও সর্বদা পালন করা সম্ভব নয় । রাজার আদেশে মুখ বন্ধ করা সহজ , খেলা কঠিন । পৃথিবীতে সাহিত্য কেন , সকল ক্ষেত্রেই নিষেধ - মান্য করা অনুসরণ - কারবার চাইতে অনেক সহজসাধ্য । এর ওর হাতে ভাল খেয়ে । ' - এই নিষেধ প্রতিপালন করেই ব্রাহ্মণজাতি আজও টিকে আছেন , বেদ - অধ্যায়নের বিধি পালন করতে বাধা হলে শুবে মারা যেতেন । . সে যাই হােক , এ কথা সত্য যে , আমার মতাে লেখকের সাহায্যে সাহিত্য - জগতের কোনাে কাজ কিংবা কাগজ সম্পাদন করা যায় না ! কেননা আমি সরস্বতীর মন্দিরের পূজারা নই , স্বেচ্ছাসেবক । স্বেচ্ছাসেবার যতই কেন গুণ থাকুক - না , তার মহাদোষ এই যে , সে - সেবার উপর বারোমেসে নির্ভর করা চলে না । আর মাসিকপত্রিকা নামে মাসিক হলেওম আসলে বারোমেসে। তা ছাড়া পত্রের প্রত্যাশায় কেউ শিমুলগাছের কাছে ঘেঁসে না ; এবং আমি যে সাহিত্য - উদ্যানে একটি শল্মলীতরু, তার প্রমাণ আমার গদ্যপদ্যেই পাওয়া যায় । লােকে বলে , আমার লেখায় গায়ে কাঁটা, আল মাথায় মধূহীন গন্ধহীন স্কুল ।
বীরবলের চিঠি মহারাজা শ্রীযুক্ত জগদিন্দ্রনাথ রায় , 'মানসী'সম্পাদক মহাশয় করকমলেষু মানসী যে সম্পাদকসংঘের হাত থেকে উদ্ধারলাভ করে অতঃপর রাজ আশ্রয় গ্রহণ করেছে , এতে আমি খুশি ; কেননা , এ দেশে পুরাকালে কী হত তা পুরাতত্ত্ববিদেরা বলতে পারেন কিন্তু একালে যে সব জিনিসই পঞ্চায়তের হাতে পঞ্চত্ব লাভ করে , সে বিষয়ে আর কোনাে সন্দেহ নেই । আমার খুশি হবার একটি বিশেষ কারণ এই যে – আমার জন্য মানসী যা করেছেন , অন্য কোনাে পত্রিকা তা করেন নি । অপরে আমার লেখা ছাপান , মানসী আমার ছবিও ছাপিয়েছেন । লেখা নিজে লিখতে হয় , ছবি অন্যে তুলে নেয় । প্রথমটির জন্য নিজের পরিশ্রম চাই , ছবি সম্বন্ধে কষ্ট অপরে যিনি আঁকেন ও যিনি দেখেন । তাই আপনি মানসীর সম্পদকীয় ভার নেওয়াতে আমি যােলােআনা খুশি হতুম , যদি আপনি ছাপাবার জন্য আমার কাছে লেখা না চেয়ে আলেখ্য চাইতেন । এর কারণ পূর্বেই উল্লেখ কষেছি । তাজা সর্ব শিরােধার্য । হলেও সর্বদা পালন করা সম্ভব নয় । রাজার আদেশে মুখ বন্ধ করা সহজ , খেলা কঠিন । পৃথিবীতে সাহিত্য কেন , সকল ক্ষেত্রেই নিষেধ - মান্য করা অনুসরণ - কারবার চাইতে অনেক সহজসাধ্য । এর ওর হাতে ভাল খেয়ে । ' - এই নিষেধ প্রতিপালন করেই ব্রাহ্মণজাতি আজও টিকে আছেন , বেদ - অধ্যায়নের বিধি পালন করতে বাধা হলে শুবে মারা যেতেন । . সে যাই হােক , এ কথা সত্য যে , আমার মতাে লেখকের সাহায্যে সাহিত্য - জগতের কোনাে কাজ কিংবা কাগজ সম্পাদন করা যায় না ! কেননা আমি সরস্বতীর মন্দিরের পূজারা নই , স্বেচ্ছাসেবক । স্বেচ্ছাসেবার যতই কেন গুণ থাকুক - না , তার মহাদোষ এই যে , সে - সেবার উপর বারোমেসে নির্ভর করা চলে না । আর মাসিকপত্রিকা নামে মাসিক হলেওম আসলে বারোমেসে। তা ছাড়া পত্রের প্রত্যাশায় কেউ শিমুলগাছের কাছে ঘেঁসে না ; এবং আমি যে সাহিত্য - উদ্যানে একটি শল্মলীতরু, তার প্রমাণ আমার গদ্যপদ্যেই পাওয়া যায় । লােকে বলে , আমার লেখায় গায়ে কাঁটা, আল মাথায় মধূহীন গন্ধহীন স্কুল ।

Publisher: মাতৃভূমি প্রকাশনী
Category: বইমেলা-২০১৯
ISBN: 9787025402785
Number of pages: -

Related Products